Tuesday, September 21, 2010

আবার যখের ধন

শচীন তেণ্ডুলকর তখনও স্কুলে; রাজীব গান্ধী তখনও বেঁচে; শাহরুখ খান তখনও অচেনা; পূজাবার্ষিকী "দেশ" তখনও বড়রা বাড়ি থেকে বেরোলে লুকিয়ে লুকিয়ে পড়তে হত; সুমন যে ঠিক কোথায়, কোনো ধারণাই ছিল না; পাঁচ পয়সার ব্যবহার ছিল; আর কলেজ একটা অদ্ভুত স্বপ্নের, অথচ নিষিদ্ধ জায়গা ছিল।

১৯৮০র দশক। কলকাতা দূরদর্শনের শ্রেষ্ঠ দশক। ১৩ পার্বণকলকাতাঅভিনন্দন ভগীরথগোয়েন্দা ভগবানদাসযদি এমন হত। বিবাহ-অভিযান (যেটা কোনও এক রহস্যময় কারণে শেষ হয়নি, আর সেই অসমাপ্ত জিনিসটাই বারবার দেখানো হত, বছরের পর বছর) আরও নানারকম। ভাল-খারাপ মিলিয়ে নানারকম। তখন অবশ্য সবই ভাল লাগত। এমনকি সাপ্তাহিকীও (ভাবা যায়, একটা ১৫-২০ মিনিটের অনুষ্ঠান, যেখানে শুধুমাত্র সেই সপ্তাহের নানারকম অনুষ্ঠানের তালিকা বলা হয়, সেটাও আমরা দেখতাম, আর রীতিমত আগ্রহভরে)।

যাইহোক্‌, এই সময়েই আসে আবার যখের ধন; সম্ভবতঃ ইতিহাসের সবথেকে অভিনব সিরিয়াল। ছোটবেলায় সাংঘাতিক নেশা ছিল হেমেন্দ্রকুমারের, কাজেই অনিবার্যভাবেই বেশ আশা নিয়ে দেখা শুরু করেছিলাম। নানারকম অভিজ্ঞতা হল দেখতে দেখতে, তার কয়েকটা মনে আছে, আর স্মৃতিভ্রংশ না হলে সারাজীবনেও ভুলবনা:
  • শুরুর গান (title song): আমার ধারণা, একটা গা-ছমছমে পরিবেশ সৃষ্টি করার প্রচেষ্টা করা হয়েছিল। একটা আদিম আরণ্যক পরিবেশে ম্যাণ্ডোলিন আর মাদল-জাতীয় বাদ্যযন্ত্রের সঙ্গে আদিবাসী গান, আমার ধারণা বেশ রোমাঞ্চকর পরিস্থিতি আনতে চেয়েছিলেন পরিচালক আর সুরকার। যেটা দাঁড়াল, ক্লাস ফাঁকা থাকলে কেউ একটা গাইত, আর আমরা বাকি সবাই হাসতাম।
  • দ্বিজেন বন্দ্যোপাধ্যায়ের অদ্ভুত অভিনয়: কোনো এক অজ্ঞাত কারণে সেই অদ্ভুতভাবে "বিমলবাবু ভাই" আর "মানিকবাবু ভাই" খুব জনপ্রিয় হয়েছিল; আমার বেশ অসহ্য লাগত, কিন্তু আমার চেনা অনেকেই এটায় প্রচুর আনন্দ পেত, আর আলোচনা করত দুর্দান্ত অভিনয় নিয়ে।
  • গাটুলা সর্দার (কে অভিনয় করেছিলেন - জ্ঞানেশ মুখোপাধ্যায়?): সম্পূর্ণ অকারণে অদ্ভুত থমথমে পরিবেশ সৃষ্টি করতেন গলার আওয়াজে। "বাবুমশায়রা, ঐ দেখা যায় কাবাগো-পাহাড়ের চূড়া" তো ঠিক আছে, কিন্তু "বাবুমশায়রা, ঐ দেখা যায় আপনাদের হোটেল" জাতীয় সংলাপে ঐ ভৌতিক অনুভূতি বোধহয় অপ্রয়োজনীয়। স্পষ্ট মনে আছে, বন্ধুরা হাঁটতে হাঁটতে হঠাৎ এ্জজন থেমে গিয়ে বলে উঠতাম "বাবুমশায়রা, ঐ দেখা যায় গড়িয়াহাটের মোড়"; এছাড়া ছিল হঠাৎ করে ভদ্রলোকের কারণে-অকারণে বলে ওঠা "এবার শুনুন সিংহদমন গাটুলা সর্দারের সিংহগর্জন" বলে একটা আপাত-ভয়াবহ (আসলে হাস্যকর) চিৎকার।
  • আফ্রিকার জঙ্গলের নরখাদক আদিবাসীরা: গোটাতিনেক লোক ছিল, বড়জোর চারজন। তাদেরকেই মুখে রংটং মাখিয়ে দৌড় করানো হত নানান্‌ দিক থেকে নানান্‌ দিকে, আর ক্যামেরার দিক বদলে বদলে ছবি তোলা হত। তিনজনকে সত্তরজন দেখানোর চেষ্টা করা হত, কিন্তু সেই বয়সেই আমরা এই অদ্ভুত গোঁজামিল বুঝে ফেলতাম।
  • বাঘা: বিমল-কুমার বহুবার বাঘাকে ডাকাডাকি করত, আর বাঘার গলার আওয়াজ শোনা যেত বারবার। ব্যাপারটা একইসঙ্গে অস্বস্তিকর আর সন্দেহজনক ছিল, কারণ বেশ কয়েকটা পর্ব অবধিও বাঘাকে দেখা যায়নি। তারপর একটা পর্বে দেখা গেল রামহরিকে, হাতে চেন, "চল, বাঘা, আয়" করতে; বেশ উত্তেজিত হলাম, এইবার নিশ্চয়ই বাঘাকে দেখা যাবে। কিন্তু সেই চেনের অন্য প্রান্তে কলার, আর সেই কলার গলায় নিয়ে স্ক্রীন আলোকিত করে থাকা বাঘাকে দেখা গেল না। গলার আওয়াজ শোনা গেল অবশ্য, যথারীতি।
তো সেই আর কি। এত সত্ত্বেও গিলতাম, বুভুক্ষুর মত, শুশুনিয়া পাহাড়-জাতীয় কোথাও আফ্রিকার জঙ্গলে অ্যাডভেঞ্চার। কি খুশি ছিলাম তাই নিয়েই! আর আজ, ১০০টা চ্যানেল সত্ত্বেও ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে কিছুতেই আর শান্ত মনে কিছু দেখে উঠতে পারিনা।

4 comments:

  1. আমার ধারণা "বিমলবাবু ভাই" আর "কুমারবাবু ভাই" ব্যাপারটাকে কেউই সিরিয়াসলি নিত না, তবে এর থেকে আনন্দ পাওয়া যেত বিস্তর । আমরা মাঝে মাঝে অপেক্ষা করতাম কখন ওগুলো বলবে আর বললেই প্রচন্ড হাসতাম ।

    যাই হোক, ঘ্যাম লেখা । অনেকদিন পরে ছোটবেলার সেইসব সিরিয়ালগুলোর কথা মনে পড়ে গেল যেগুলোর একটা পর্বও কখনও মিস্‌ করতে চাইতাম না । আর তার চেয়েও বড় কথা, দূরদর্শনে যতবারই ওগুলো দেখাত, বাড়ির বড়দের আপত্তিসত্বেও দেখতাম ।

    এখানে আরেকটা সিরিয়াল উল্লেখ করার দরকার যেটা আমার খুব পছন্দের ছিল দেশ আমার দেশ । এটার একেকটা পর্বে একেকটা গল্প শেষ হয়ে যেত, বড়জোর দু'টো পর্ব ধরে চলত ।

    ReplyDelete
  2. prthom diker kichu pawrbey badroloker barir chatey sei bhyonkor gorrila r mawto prani asto...chatey awaj paoa jeto.kintu sebhabey takey dakha to na....akbar bodh hoy gorillar mawto kichu akta dakhalo....kintu jato ta bhayonkor dakahbey bhablam tatota dakhalo na....

    ar jahaj e prathombar sei ghatotkawch key dakhalo jakhon takhon besh legechilo...besh bhoyonkor mukh ta chilo..hasi tao besh chilo....

    ar mawrbar agey sei 'kakar akta chitkar achey.....tatey dijen babu bawlen " awmon buk fata chichkar ke kolley bhai"?

    ami ar amar bhai eta akhono boley thaki :)

    ReplyDelete
  3. Ei Abar Jokher Dhon sei boyosei Sahity-er telivized version-er proti chorom bitrishna toiri korte sahajyo korechhilo... tachhara etar somwondhe kono bhalo kotha bolte parlam na. Jara boita poreni tara sotyi-i oi 'Bimalbabu bhai' ar 'Manikbabu bhai' ar 'ami ekhon nuchi khabo' etc. bhnaramigulo-ke comic relief mone korto. bochhor 20 pore eder dwitiyo priyo serial shurur hoe, jar naam 'Raja ar Goja, Adbhut Moja' or something!

    ReplyDelete
  4. তবে, যাই বলুন, এই ''আবার যখের ধন'' কিন্তু আমার কমলেশ্বর-এর 'চাঁদের পাহাড়''-এর চেয়ে ঢের ঢের ভালো লেগেছে।

    ReplyDelete

Followers